1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:৩৯ অপরাহ্ন

কমলগঞ্জে স্কুলের চালের নিচে ৩শালিক পাখির ছানার জন্ম

  • প্রকাশিত : শনিবার, ৬ জুন, ২০২০
  • ৬৭৫ জন পড়েছেন

ডাক নিজস্ব প্রতিনিধি: করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনায় সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে। ফলে সারাদেশের মত মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমমেরনগর আইডিয়াল কিন্ডার গার্টেন স্কুল প্রাঙ্গণও নিস্তব্দ অবস্থায় রয়েছে। আর এই সুযোগে স্কুলের বারান্দার চালের নিছে একটি খুটির ফাঁকে বাসা করে সেখানে নিরবে একটি শালিক ৩ টি ছানার জন্ম দিয়েছে।

স্কুলের অফিস খুলে কিছু অফিসিয়াল জরুরী কাজ করতে গিয়ে স্কুলের অধ্যক্ষ মুজিবুর রহমান রঞ্জুর নজরে আসে স্কুলের বারান্দনার চালের নিচে খুটির এক ফাঁকে পাখির একটি বাসায় দেখতে পান ৩টি শালিক ছানা। সাথে সাথেই একজন শিক্ষককে দিয়ে তিনি মুঠোফোনের ক্যামেরায় ছানাগুলোর ছবি ধারণ করান।
করোনার প্রভাবে স্কুল বন্ধ হলেও একটি মা শালিক নিরব স্থান খোঁজে স্কুল বারান্দার চালের নিছে খুটির এক কোণে নিজের ঘর তৈরী করে। সে ঘরে ডিম পেড়ে আর সেখানে ৩টি ছানার জন্মও দেয়। প্রতিদিন মা শালিক খাদ্য সংগ্রহ করে এনে নিরবে মুক্ত মনে তার ছানাদের আহার দেয়।

আইডিয়াল কেজি স্কুলের সীমানা প্রাচীর এলাকায় ও পিছনের চা বাগানে গাছে শালিকসহ বেশ কিছু পাখির বাসা রয়েছে। স্কুল চলাকালীন সময়ে দুপুরে শিক্ষার্থীরা টিফিন খাওয়ার সময় অনেক খাবার সামনের প্রাঙ্গণে পড়ে। আর বিকেলে পাশের গাছ থেকে শালিক, বুলবুলিসহ অন্যান্য পাখিরা এসে এসব খাবার খোঁজে খায়। প্রতিদিন বিকেলে আইডিয়াল কেজি স্কুলে শালিক পাখির কলকাকলিতে মুখরিত থাকে। স্কুল চলাকালীন সময়েও দল বেধে শালিক এসে প্রাঙ্গনে নেমে খাবার খেলে শিক্ষক, শিক্ষার্থী তা অবলোকন করেন তবে কোনভাবেই শালিকের দলটিতে তাড়ান না।
স্কুলের শিক্ষকরা শালিকের তৈরী ঘরে ৩টি নবজাতক ছানা দেখে আনন্দিত। শিক্ষকরা সকালে স্কুলে এসে প্রথমেই খোঁজ নেন শালিকের ঘর ও ছানারা আছে কিনা ?

আইডিয়াল কেজি স্কুলের অধ্যক্ষ মুজিবুর রহমান রঞ্জু বলেন, প্রতিদিন স্কুল চলাকালে টিফিনের পর এক ঝাঁক শালিক প্রাঙ্গনে নেমে শিশুদের ফেলে দেওয়া উচ্ছিষ্ট টিফিন খেয়ে আবার পরে উড়ে যেত। ঐ শালিকের দলে একটি শালিকের একটি পা নেই। সে শালিকটিও এসে খাবার খেতো। স্কুলের সবার আলাদা টান রয়েছে এক পানহীন শালিকের জন্য। এখন স্কুল বন্ধ থাকায় বারান্দায় একটি শালিক ৩টি ছানার জন্ম দিয়েছে। এতে স্কুলের সকল শিক্ষক আনন্দিত। এখন সবাই নজদারি করছেন যাতে ছানাগুলো উড়তে শিকার আগ পর্যন্ত ঘরের কোন ক্ষতি না হয় আর বিড়াল যেন কোনভাবেই এ ছানাগুলোকে খেতে না পারে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!