1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
নবাবগঞ্জে ২ বিদ্যুৎ শ্রমিকের মৃত্যু
শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১২ অপরাহ্ন

নবাবগঞ্জে ২ বিদ্যুৎ শ্রমিকের মৃত্যু

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০
  • ৩৬৫ জন পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক:; ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে জুয়েল রানা (২৫) ও মমিনুল ইসলাম (২২) নামে দুই বিদ্যুৎ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে সুমন (১৮) নামে আরেক শ্রমিক। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার বিকাল ৩টার দিকে উপজেলার যন্ত্রাইল ইউনিয়নের ভাওয়ালিয়া এলাকায় আবুল হোসেনের বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত জুয়েল রানা কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার রাজারহাট গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে ও মমিনুল ইসলাম একই উপজেলার দোলন গ্রামের নজীর হোসেনের ছেলে।

বিদ্যুৎ শ্রমিক গণি, আতিক হাসানসহ এলাকাবাসী জানান, পূর্ব ঘোষনা দিয়ে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর অধীনে নবাবগঞ্জ-শোল্লা লাইনের ১১ হাজার ভোল্টেজের বিদ্যুৎ লাইনের খুটির তার পরিবর্তনে বুধবার সকাল থেকে কাজ শুরু করেন ঠিকাদার আব্দুর রহমানের প্রতিষ্ঠানের ১০/১২জন শ্রমিক। বিকাল ৩টার দিকে ভাওয়ালিয়া এলাকার বিদ্যুৎ খুটির তারের দুইপাশের তারের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। শ্রমিকরা বিচ্ছিন্ন তিনটি খুটির বিদ্যুতের তার পরিবর্তনের কাজ করছিলেন। এ সময় ঐ এলাকার আবুল হোসেনের বাড়ির ছাদে থাকা বাংলালিংক টাওয়ারের ব্যাটারি চার্জ দিতে ভ্রাম্যমাণ জেনারেটর থেকে সংযোগ দেন ঐ কোম্পানির টেকনিশিয়ানরা। জেনারেটর স্টার্ট দেওয়ার মাত্র কাজ করতে থাকা পল্লী বিদ্যুতের কাজ করতে থাকা ওই তিন শ্রমিক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। এ সময় সুযোগ বুঝে বাংলালিংকের টেকনিশিয়ানরা পালিয়ে যায়। তবে গাড়ির চালককে আটক করেছেন এলাকাবাসী।

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় ওই তিন শ্রমিককে উদ্ধার করে দ্রুত উপেজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে মমিনুল ও জুয়েল রানাকে মৃত ঘোষণা করেন দায়িত্বরত চিকিৎসক।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত পল্লী বিদ্যুৎ কর্মকর্তা মমিনুল ইসলাম জানান, জেনারেটর চালু দেওয়ার সময় বাড়ির মূল বিদ্যুৎ সংযোগের মেইন সুইচ বন্ধ করা হয়নি। এতে ঐ জেনারেটরের বিদ্যুৎ পল্লী বিদ্যুৎ তারের মাধ্যমে বিদ্যুতের লাইনে চলে যায়। এতে কাজ করা শ্রমিকরা বিদ্যুস্পৃষ্ট হয়।

এ ব্যাপারে বাংলালিংক কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার মানিক উদ্দীন মুঠোফোনে বলেন, আমাদের টাউয়ারের বিদ্যুৎ সংযোগের দুটো ব্রেকারই বন্ধ ছিল। জেনারেটরের সাথে পল্লী বিদ্যুতের তারের কোনো সংযোগ ঘটার সম্ভাবনা নেই। পল্লী বিদ্যুতের কোনো ভুলে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

নবাবগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক মৃত্যুঞ্জয় কির্তনীয়া জানান, সংবাদ পেয়ে হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন করা হয়েছে। দুর্ঘটনার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০১৯-২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!