1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
নাঙ্গলকোটে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ, আহত ১০
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৪৮ পূর্বাহ্ন

নাঙ্গলকোটে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ, আহত ১০

  • প্রকাশিত : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০
  • ৩৩৬ জন পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক:: কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার মাধবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার দিন রাতে আহত আব্দুল মোতালেবের মেয়ে শাহিনুর আক্তার সামিয়া বাদি হয়ে ইউপি সদস্য বাবুল গাজীকে এক নম্বর আসামি করে ১১ জনের নামে নাঙ্গলকোট থানায় মামলা করেন।

এসআই আনোয়ার হোসেন খন্দকার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে অন্যতম প্রধান আসামি ওই ইউপি সদস্য বাবুল গাজীকে আটক করেন। বুধবার সকালে কুমিল্লার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

আহতরা হলেন—ওই গ্রামের নূর ইসলাম, তার স্ত্রী জাহানারা বেগম, দেলোয়ার হোসেন, ছেলে বেলাল হোসেন, হেলাল, আবদুল মোতালেব, তার স্ত্রী আকলিমা বেগম, ছেলে আরমান, প্রতিপক্ষের সাহাব উদ্দিন ও সোহরাব হোসেন।

তাদের মধ্যে আবদুল মোতালেব তার স্ত্রী আকলিমা ও ছেলে আরমানকে আশংকাজনক অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, আব্দুল মোতালেব ও আবদুল মতিন আপন ভাই। মঙ্গলবার বিকালে বাবুল গাজী মেম্বারের বাবা বজলুর রহমানের ছাগলকে মারধর করার অজুহাতে ওই ইউপি সদস্য বাবুল গাজীর নেত্বত্বে ১৫-২০ জনের একটি গ্রুপ এক অসহায় পরিবারের ওপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে কুপিয়ে ৮ জনকে জখম করে এবং অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে স্থানীয় সাংবাদিকরা উদ্ধার করে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠান।

এ বিষয়ে শাহিনুর আক্তার তানিয়া বলেন, গত এক সপ্তাহ থেকে বাবুল গাজীর ভাইয়েরা তাদের গৃহবন্দি করে রাখে। মঙ্গলবার তিনি ও তার ভাইয়েরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে তাদের বাড়িঘর ভাংচুর করে এবং তার বাবা-মা, ভাই ও ফুপুকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য বাবুল গাজী জানান, বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ ঘটনার জেরে তারা আমার ভাই সাহাব উদ্দিন ও সোহরাব হোসেনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, স্থানীয় সাংবাদিকদের সহযোগিতা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শাহিনুর আক্তার সামিয়া বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। এ ঘটনার এক নম্বর আসামি ইউপি সদস্য বাবুল গাজীকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০১৯-২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!