1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন

ইবি ভিসির অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৫ জুলাই, ২০২০
  • ১৫৬ জন পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক:: কুষ্টিয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-উর রসিদ আসকারীর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান প্রায় সাড়ে ৫শত কোটি টাকার মেগা প্রকল্পে অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি এবং নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ঘুষবাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ তুলে অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া শহরের এনএস রোডের বক চত্বরে ছাত্রলীগ, কর্মকর্তা/কর্মচারী সমিতির ব্যানারে এই কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় নানা অভিযোগ সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড তুলে ধরে অবিলম্বে উপাচার্যের পদত্যাগসহ সহযোগী সাবেক প্রক্টর মাহবুবর রহমানকে বহিষ্কার ও গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধন সমাবেশে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে এবং কর্মকর্তা সমিতির সাধারণ সম্পাদক মীর মো. মোর্শেদুর রহমান পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন- বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুল আরফিন, প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভূইয়া, ড. সাজ্জাদ হোসেন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি মো. শামছুল ইসলাম জোহা, সদস্য উকিল উদ্দিন, ছাত্রলীগ নেতা জুবায়ের রহমান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, নিয়োগ বাণিজ্য ও টেন্ডার বাণিজ্যের হোতা দুর্নীতিবাজ ভিসি ড. আসকারী দায়িত্ব গ্রহণ করেই প্রগতিশীল এবং ছাত্রলীগের রাজনীতি ধ্বংস করে জামায়াত-বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে চলেছেন।

তিনি একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে সেই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সকল প্রকার অনিয়ম-দুর্নীতি পরিচালনা করছেন।

প্রতিবাদ করলেই নেয়া হয় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা। বিশ্ববিদ্যালয় আজ তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হতে চলেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়কে বাঁচাতে অবিলম্বে এই দুর্নীতিবাজ ভিসিকে অপসারণ করে ভিসি এবং তার অনিয়ম-দুর্নীতি সিন্ডিকেটের সকল সদস্যের অপকর্ম তদন্তপূর্বক বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান বক্তারা।

তারা বলেন, আগামী ২০ আগস্ট বর্তমান উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তবে এই উপাচার্য দ্বিতীয় মেয়াদে নিয়োগ পেতে দেন দরবার করছেন। তিনি যদি পুনরায় নিয়োগ পান তাহলে ক্যাম্পাসে মারাত্মক অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হবে।

তবে এ বিষয়ে ইবি উপাচার্য মুঠোফোনে বলেন, আমার আর মাত্র কয়েকটা দিন বাকি আছে মেয়াদ পূর্তির। এ যাবৎকাল উনারা কোনো অভিযোগ করলেন না, এখন হঠাৎ করে এসে এসব অভিযোগ উত্থাপন হীন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অভিযোগগুলো সম্পূর্ণরূপে অসত্য, বানোয়াট ও মনগড়া।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে যে কোনো ফোরামে স্বচ্ছতার ভিত্তিতে সন্তোষজনক ব্যাখ্যা দিতে পারব। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা সমিতি, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামসহ বিভিন্ন সংগঠন আমার মেয়াদের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে লিখিত সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে দাবি করেন ভিসি।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!