1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন

‘গলায় বেল্টের ফাঁস দিয়ে সুশান্তকে মেরেছে বন্ধু সিদ্ধার্থ’

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৭০ জন পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক:: সুশান্ত সিং রাজপুতকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে আর সেটি করেছে তার বন্ধু পাঠানি। ঠিক এমনটি দাবি করছেন সুশান্তের বাবার আইনজীবী বিকাশ সিংহ। বুধবার (১২ আগস্ট) সংবাদ সংস্থার দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘একজন অপরাধী হিসাবে সিদ্ধার্থ খুবই ধূর্ত এবং বুদ্ধিমান।’

বিকাশ সিংহ এই দাবির পক্ষে অনেকগুলো যুক্তিও উপস্থাপন করেছেন। ওই দিন বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমি সুশান্তের মৃতদেহের ছবি দেখেছি। আমাদের এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই যে তাকে গলায় বেল্টের ফাঁস দিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। কারণ, মৃত সুশান্তের গলায় যে কাপড় জড়ানো ছিলো সেই কাপড় থেকে গলায় এতো গভীর ক্ষতচিহ্ন হতে পারে না।’

আইনজীবীর দাবি, ‘সিদ্ধার্থই এই কাজ করেছে। ঘটনার সময়ে একমাত্র সেই ছিলো সুশান্তের ফ্ল্যাটে।’

পুলিশের কাছে দেওয়া জবানবন্দিতে সিদ্ধার্থ জানিয়েছিলেন যে, সুশান্তের মৃত্যুর সময়ে তিনি ফ্ল্যাটের অন্য ঘরে ছিলেন।

আইনজীবী আরও দাবি করেন, ‘সুশান্তের মৃত্যুর পরে সিদ্ধার্থ প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের সঙ্গে খুব ভালো ব্যবহার করছিলেন। তাদের নিয়মিত খোঁজ-খবরও নিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু সুশান্তের বাবা কে কে সিং ঘটনার এফআইআর দায়ের করার পরেই সিদ্ধার্থের ব্যবহার পাল্টে যেতে শুরু করে। তারপর থেকেই তিনি রিয়াকে সাহায্য করা শুরু করেন।’

সুশান্তের বাবা অবশ্য এফআইআরে সিদ্ধার্থের নাম উল্লেখ করে কোন অভিযোগ করেননি।

সুশান্তের বাবার ‘দ্বিতীয় বিবাহ’ নিয়ে গতকাল শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত কুরুচিকর মন্তব্য করলে পরের দিন সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে ৯ পাতার একটি দীর্ঘ চিঠি প্রকাশ করা হয়। হিন্দি ভাষায় লেখা এই চিঠিটিতে বলা হয়েছে, সাধারণ পরিবার থেকে উঠে আসা সুশান্তের সঙ্গে কখনওই তার পরিবারের শিকড় ছিন্ন হয়নি। নীরজ কুমার বাবলু নামে সুশান্তের এক আত্মীয় সঞ্জয় রাউতকে এক আইনি নোটিশ পাঠিয়ে দাবি করে বলেন, ‘সঞ্জয়কে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে তা না হলে তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা হবে।’

এর আগে, সুশান্তের মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া অ্যাম্বুলেন্সচালক বলেন, অজানা নম্বর থেকে প্রতিদিন প্রায় ৩শ বারেরও বেশি ফোন আসছে। প্রতিটি ফোনেই কে বা কারা তাকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করছেন।

তিনি দাবি করেন, আত্মহত্যায় মৃত্যু হয়েছে এমন বহু দেহ তিনি দেখেছেন। সেই অভিজ্ঞতা থেকেই তার ধারণা, আত্মহত্যা নয়, খুনই করা হয়েছে সুশান্তকে।

সূত্র : আনন্দবাজার

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!