1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
  4. salauddinsuvo80@gmail.com : Salauddin Suvo : Salauddin Suvo
বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান থেকে শতবর্ষী সেগুন গাছ কর্তণ

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১২৯ জন পড়েছেন
বনকর্মীদের ধাওয়ায় পলাল চুরচক্র

নিজস্ব প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া উদ্যানে শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় প্রকাশ্য দিবালোকে প্রবেশের প্রধান ফটকের ৩০০ গজের মধ্যে একটি বিশালকার সেগুন কেটে ফেলে সংঘবদ্ধ গাছ চোরচক্র। গাছ পড়ার আওয়াজ শুনে সিপিজি সদস্য ও বনকর্মীদের ধাওয়ায় গাছ কাটার যন্ত্রাংশ ও কাপড়-চোপড়সহ কাটা গাছ ফেলে পালিয়ে যায় তারা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রচুর পর্যটক আসেন লাউয়াছড়া উদ্যানে। পর্যটকের ভিড়ে ভেতরে প্রবেশের ব্যবস্থায় সবাই ব্যস্ত থাকার সুযোগে ২০ থেকে ২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল গাছ কাটার করাত নিয়ে এসে প্রবেশ পথের প্রধান ফটকের ৩০০ গজ পূর্বদিক থেকে প্রায় শতাদিক ফুট উচ্চার ৫ ফুট বেড়ের একটি সেগুন গাছ কাটে। কাটা সেগুন গাছটি বিকট আওয়াজে মাটিতে পড়লে আওয়াজ শুনে প্রধান ফটকে থাকা কয়েকজন সিপিজি (কমিউনিটি পেট্রোরিং গ্রুপ) সদস্য ও বনকর্মী ঘটনাস্থলের দিকে এগিয়ে যান।

এসময় সংঘবদ্ধ গাছ চোরচক্র উল্টো ধাওয়া করে। পরে অতিরিক্ত লোকজন নিয়ে বন-বিভাগ ধাওয়া করলে গাছ কাটার করাত, গায়ের কিছু কাপড়-চোপড় ও কাটা গাছ ফেলে চোরচক্র পালিয়ে যায়।

লাউয়াছড়া ইকো-ট্যুরিষ্ট গাইড শাহীন মিয়া বলেন, প্রকাশে দিবালোকে এত মানুষের উপস্থিতি থাকার পরও বড় সেগুন গাছ কেটে ফেলে শক্তিশালী চোরচক্র। প্রথমে কয়েকজন মিলে দৌড়ে ঘটনাস্থলের দিকে গেলে গাছচোর চক্র ধাওয়া করলেও পরে সিজিপি সদস্য ও বনকর্মী মিলে অতিরিক্ত লোকজন নিয়ে ধাওয়া করলে গাছ চোরচক্র পালিয়ে যায়।

কমলগঞ্জ জীববৈচিত্র্য রক্ষা কমিটির সাধারন সম্পাদক ও ট্যুর গাইড এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের সদস্য মো. আহাদ মিয়া বলেন,‘দিন-দুপুরে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের প্রধান ফটকের খুব কাছাকাছি জায়গা থেকে সেগুন গাছ চুরির ঘটনা খুর রহস্যজনক বন বিভাগ ও সিপিজির কেউ সম্পৃক্ত থাকতে পারে এটা সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থ্য গ্রহন করা প্রয়োজন।’

কমলগঞ্জ জীববৈচিত্র্য রক্ষা কমিটির সভাপতি মনজুর আহমেদ মান্না বলেন,‘লাউয়াছড়া একটি গুরুত্বপূর্ণ বন। আমরা জীববৈচিত্র্য রক্ষায় কাজ করছি। কিন্তু কারো অবহেলায় প্রধান ফটকের খুব কাছাকাছি জায়গা থেকে সেগুন গাছ চুরির ঘটনায় আমরা ক্ষুব্দ। বন-বিভাগের কারো জড়িত বা গাফিলতি থাকলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হোক।’

লাউয়াছড়া বনবিট কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন,‘ভাবতে অবাক লাগে যে, গাছচোর চক্র প্রকাশে দিবালোকে এত সাহস করে কিভাবে বড় সেগুন গাছটি কেটে ফেলল। ধাওয়া খেয়ে গাছ চোরচক্র পালিয়ে গেলেও ফেলে যায় কেটে নেওয়া সেগুন গাছটি। ঘটনাস্থল থেকে গাছ চোরদের ব্যবহৃত করাত ও কিছু কাপড়-চোপড় জব্দ করা হয়েছে।তিনি আরো বলেন,চোর চক্রদের চিহিৃত করে মামলা দেওয়া হবে।’

বন-বিভাগের কারো জড়িত বা গাফিলতি আছে কি-না এ বিষয়ে লাউয়াছড়া রেঞ্জে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোতাল্লেব হোসেনকে একাধিকবার মোটোফোনে যোগাযোগ করলে পাওয়া যায় নি।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!