1. info2@kamalgonjerdak.com : কমলগঞ্জের ডাক : Hridoy Islam
  2. info@kamalgonjerdak.com : admin2 :
  3. editor@kamalgonjerdak.com : Editor : Editor
  4. salauddinsuvo80@gmail.com : Salauddin Suvo : Salauddin Suvo
মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পেয়ে স্বপ্ন পূরণের পথে মাহমুদা - কমলগঞ্জের ডাক
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন

মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পেয়ে স্বপ্ন পূরণের পথে মাহমুদা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৬৫ জন পড়েছেন

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ডের অদম্য মেধাবী সৈয়দা মাহমুদা আক্তার (কলি)। কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় শুভেচ্ছা জানাতে তার বাড়িতে বন্ধুবান্ধব ও আত্বীয় সজনের ঢল নেমেছে।

বাবা আয়ুব আলী উপজেলার ভানুগাছ রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় হোটেলের ব্যবসা করেন। এ ব্যবসায় পরিবার ও মেয়ের পড়াশোনার ব্যয় নির্বাহ করেন। মেয়ে মাহমুদা মেধবী বলে ব্যবসার ব্যস্ততার মাঝেও তার লেখাপড়ার খোঁজ খবর নিতেন।

মধ্যবিত্ত পরিবারের বাবা ও মেয়ের স্বপ্ন ছিল একজন ভালো ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করবে। সম্প্রতি ২০২১ সালের মেডিক্যাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষায় মাহমুদা পাশ করে কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়ে হাসি ফুটিয়েছে মা-বাবা ও এলাকাবাসীর মুখে।

আলাপকালে মাহমুদা বলেন , স্বপ্ন পূরণের জন্য বাবার কষ্টের বিষয়টি মাথায় রেখে ছোট বেলা থেকেই অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী হিসেবে নিজেকে তৈরি করেছে। ফলে সদ্য অনুষ্ঠিত সরকারি মেডিক্যাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।

মাহমুদা আরো বলেন, আল্লাহ তায়ালার কাছে শুকরিয়া জানিয়েছেন ও এলাকাবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। যাতে করে ভালো ডাক্তার হয়ে এলাকাবাসীর সেবা করার যেন সুযোগ পান।

সৈয়দা মাহমুদা আক্তার (কলি) ৫ম, ৮ম, এসএসসি ও এইচএসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে। এর পর মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির জন্য দিনরাত পড়াশুনা করেছে। মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায়ও চান্স পেয়েছে কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজে ।

মাহমুদার বাবা আইয়ূব আলী বলেন, মেয়ে ছোটবেল থেকে মেধাবী ছিল।  মেয়ের প্রতিটা রেজাল্ট ভালো থাকায়, মেয়ের ইচ্ছে ও উৎসাহ দেখে পরে তার স্বপ্ন পূরণে তাকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়েছেন। সে তার লক্ষ্যে পৌঁছতে কঠোর পরিশ্রম করায় সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ করে নিয়েছে। মেয়ের এ ফলাফলে তিনিসহ পরিবারের সকল সদস্য খুশি।

কমলগঞ্জ পৌর মেয়র মো. জুয়েল আহমেদ বলেন, সৈয়দা মাহমুদা আক্তারের এ সাফল্যে এলাকাবাসী তথা মৌলভীবাজারবাসী খুবই খুশী। তার সাফল্য সবাই চেয়েছে। সে বড় ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকবে এতেই আমরা খুশি।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন....
© ২০২০-২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কমলগঞ্জের ডাক | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By : Radwan Ahmed
error: কপি সম্পূর্ণ নিষেধ !!